সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ০৩:১৮ অপরাহ্ন বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी
শিরোনাম :
পৃষ্ঠপোষকতা পেলে পুনরায় স্কুলমুখী হবে সীমা বাঘায় নৌকার চেয়ারম্যান প্রার্থীগনের মনোনয়নপত্র দাখিল। পুলিশের হাতে ইয়াবা সহ স্বামী স্ত্রী আটক। বেলাব উপজেলা আওয়ামীলীগের উদ্যোগে আলোচনা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত। সী-প্লেনের আদলে হোভারক্রাফট তৈরি করেছেন ক্ষুদে বিজ্ঞানী শাওন।।  বাকেরগঞ্জে বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষ্যে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত। মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী কর্তৃক দুঃস্থদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ কালিয়া নির্বাচন সামনে রেখে আইনশৃঙ্খলা বিষয় মতবিনিময় সভা বাঘায় মোজাহার হোসেন মহিলা ডিগ্রি কলেজে শিক্ষার্থীদের বিদায় উপলক্ষে আলোচনা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত মীর্জাগঞ্জে সাংবাদিকদের উপরে হামলার প্রতিবাদে বাকেরগঞ্জে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত
নোটিশ:
প্রতিনিধি নিয়োগের জন্য যোগাযোগ করুন: ০১৭২৬ ০৫ ০৫ ০৮
দেবহাটায় স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষনের পর শ^াসরোধ করে হত্যার ঘটনায় আসামী পার্থ মন্ডল গ্রেফতার, পুলিশের প্রেস বিফ্রিং
/ ৪৪ বার
আপডেট সময় : রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ২:৩৮ অপরাহ্ন

 

খন্দকার আনিসুর রহমান, সাতক্ষীরা প্রতিনিধি ঃ সাতক্ষীরার দেবহাটায় দশম শ্রেনীতে পড়ুয়া স্কুল ছাত্রীকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে ধর্ষন ও শ্বাসরোধ করে হত্যার ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার একমাত্র আসামী ভিকটিমের প্রেমিক পার্থ মন্ডলকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শনিবার রাতে অবৈধভাবে ভারতে পালানোর সময় সদর উপজেলার বৈকারী সীমান্ত থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে হত্যায় ব্যবহৃত ইলেকট্রিক ক্যাবল ও একটি বাইসাইকেল জব্দ করা হয়। রোববার দুপুরে পুলিশ সুপার কার্যালয়ে এক প্রেসবিফিং-এ সাতক্ষীরার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান এসব কথা জানান।
পুলিশ সুপার বলেন, দেবহাটা উপজেলার টিকেট গ্রামের শান্তিরঞ্জন দাসের মেয়ে গাভা একেএম আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণীর ছাত্রী পূর্ণিমা দাসকে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ শেষে গলায় ক্যাবল পেঁচিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠে তার প্রেমিক একই গ্রামের একই গ্রামের শিবপদ মন্ডলের ছেলে প্যারা মেডিক্যালে অধ্যয়নরত ছাত্র পার্থ মন্ডলের বিরুদ্ধে। শুক্রবার সকালে বাড়ির পাশের একটি পরিত্যক্ত বাড়ির সবজি বাগান থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।
ওইদিন রাতে পূর্ণিমার বাবা শান্তি রঞ্জন দাস দেবহাটা থানায় পার্থকে আসামী করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা করেন। পুলিশ তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে শনিবার রাতে ভারতে পালিয়ে যাওয়ার সময় পার্থকে সদর উপজেলার বৈকারী সীমান্ত এলাকা থেকে গেপ্তার করে। পরে পুলিশের কাছে জবানবন্দীতে পার্থ মন্ডল পূর্ণিমাকে হত্যার কথা স্বীকার করে। পুলিশ সুপার গ্রেপ্তাকৃত পার্থের উদ্ধৃতি দিয়ে আরো বলেন, পূর্ণিমা দাসের সঙ্গে পার্থ মন্ডলের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। এক বছর আগে পূর্ণিমাকে বিয়ের জন্য পার্থ মন্ডল প্রস্তাব দেয়। এতে পূর্ণিমার বাবা শান্তি রঞ্জন দাস রাজি না হওয়ায় পার্থ বিষপানে আত্নহত্যার চেষ্টা করে। এ সময় পার্থ অসুস্থ হয়ে পড়লে পূর্নিমা তাকে আর কোন খোঁজ খবর না নিয়ে তাকে এড়িয়ে চলে এবং এলাকার বাইরের এক ছেলের সাথে পূর্ণিমা সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে বলে খবর আসে পার্থের কাছে। এতে পার্থ ক্ষিপ্ত হয়ে মনে মনে পরিকল্পনা করে সে যদি পূর্ণিমাকে না পায় তাহলে অন্য কাউকেও পূর্নমাকে পেতে দিবে না। এরই জেরে সুযোগ বুঝে পার্থ তাকে হত্যা করে বলে আরো জানান পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান।

এ জাতীয় আরো খবর
আমাদের ফেইসবুক পেইজ