বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ০৪:১৪ অপরাহ্ন বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी
শিরোনাম :
সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের ১৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন। বাগেরহাটের রামপালে রাজনগর ইউপি’র নির্বাচনী পথসভা অনুষ্ঠিত বেলাবতে প্রকল্প অবহিতকরণ সভার আয়োজন নড়াইলে ফল ব্যবসায়ী  কুপিয়ে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা গৃহপালিত একটি মুরগী হঠাৎ করেই মোরগে রুপান্তরিত হয়ে গেছে বগুড়া ধুনটে হ্যান্ডমাইক নিয়ে রাস্তায় নেমে এলেন মেয়র নিজেই অবৈধ বালু কাটায়  কুয়াকাটা সৈকত।। নিষেধাজ্ঞা শেষে মাছ শিকারে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে উপকূলের জেলেরা রামপালের ফয়লাহাট থেকে র‌্যাবের হাতে কথিত জ্বীনের বাদশা প্রতারক চক্রের সদস্য আটক দক্ষিণের পায়রা সেতু’ উদ্বোধনের মধ্যে দিয়ে সৃষ্টি হলো নতুন ইতিহাস। বিলুপ্ত হলো ফেরী পাড়াপাড়
নোটিশ:
প্রতিনিধি নিয়োগের জন্য যোগাযোগ করুন: ০১৭২৬ ০৫ ০৫ ০৮
কলাপাড়ায় জমি লিখে না দেওয়ায় ভন্ড জামাইয়ের অমানবিক কান্ড !
/ ৭২ বার
আপডেট সময় : রবিবার, ২৯ আগস্ট, ২০২১, ৪:১৭ অপরাহ্ন
কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি।। পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় জামাই ইসমাইল’কে জমি লিখে না দেওয়ায় শাশুড়ি সুফিয়া বেগম (৮০) কে মারধর করে জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। আহত সুফিয়া বেগম পৌর শহরের বাদুরতলী এলাকার একুশে সড়কের মৃত মোসলেম খানের স্ত্রী। শুক্রবার দুপুর ১ টায় পৌর শহরের উপজেলার বাদুরতলী এলাকার একুশে সড়কে এ ঘটনাটি ঘটেছে। এ ঘটনায় আহত সুফিয়া বেগম ছেলে সোহরাব শনিবার ২৮ আগষ্ট কলাপাড়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছে।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ইসমাইল খাঁ শ্বশুরবাড়িতে জোর করে ঘর তুলে বসবাস করে আসছে। বিভিন্ন সময় ইসমাইলকে ঘর নিয়ে যাওয়ার জন্য বলা হলে সে যাচ্ছিল না। ওই ঘরের জমি নিজের নামে লিখে দিতে শাশুড়িকে বলে। এতে রাজি না হওয়ায় ঘটনা দিন ইসমাইল খাঁ ও তার ছেলে নাঈম এবং ফেরদৌস মিলে কিল, ঘুসি, চর, থাপ্পর দিয়ে বৃদ্ধ সুফিয়া বেগমকে আহত করে। এ সময় সুফিয়া বেগমকে বাঁচাতে এসে তার ছেলে সোহরাব (৩৪) ও ছেলের বউ শাহিদা (২০) কেও বেধরক মারধর করে আহত করে।
আহত সুফিয়া বেগমের ছেলে সোহরাব বলেন, ইসমাইল খাঁ আমার বড় বোনের জামাই। সে কলাপাড়া থানার কথিত সোর্স পরিচয় দিয়ে মাদক ব্যবসার সাথে জড়িয়ে পড়ে। কয়েক মাস আগে ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার হয়ে জেলহাজতে ছিল, জেল থেকে বেরিয়ে আরো বেপরোয়া হয়ে ওঠে। যার জন্য আমাদের বাড়ি থেকে তাকে যেতে বলা হয়। কিন্তু বাড়ির জমি নিজের দাবি করে এবং নিজের নামে লিখে দিতে বলে। এতে রাজি না হওয়ায় আমি সহ আমার মা ও স্ত্রী কে কিল, ঘুসি, চর, থাপ্পর মারে রক্তাক্ত করে।
বর্তমানে সুফিয়া বেগম কলাপাড়া হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
এ ব্যাপারে কলাপাড়া থানার ওসি (তদন্ত) মো. আসাদুর রহমান জানান, অভিযোগ পেয়েছি, তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।
এ জাতীয় আরো খবর
আমাদের ফেইসবুক পেইজ