বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ০৩:৫১ অপরাহ্ন বাংলা বাংলা English English हिन्दी हिन्दी
শিরোনাম :
সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের ১৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন। বাগেরহাটের রামপালে রাজনগর ইউপি’র নির্বাচনী পথসভা অনুষ্ঠিত বেলাবতে প্রকল্প অবহিতকরণ সভার আয়োজন নড়াইলে ফল ব্যবসায়ী  কুপিয়ে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা গৃহপালিত একটি মুরগী হঠাৎ করেই মোরগে রুপান্তরিত হয়ে গেছে বগুড়া ধুনটে হ্যান্ডমাইক নিয়ে রাস্তায় নেমে এলেন মেয়র নিজেই অবৈধ বালু কাটায়  কুয়াকাটা সৈকত।। নিষেধাজ্ঞা শেষে মাছ শিকারে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে উপকূলের জেলেরা রামপালের ফয়লাহাট থেকে র‌্যাবের হাতে কথিত জ্বীনের বাদশা প্রতারক চক্রের সদস্য আটক দক্ষিণের পায়রা সেতু’ উদ্বোধনের মধ্যে দিয়ে সৃষ্টি হলো নতুন ইতিহাস। বিলুপ্ত হলো ফেরী পাড়াপাড়
নোটিশ:
প্রতিনিধি নিয়োগের জন্য যোগাযোগ করুন: ০১৭২৬ ০৫ ০৫ ০৮
মাছ শিকারে গিয়ে দীর্ঘ ১৩ বছর পর ফিরে এলো কুয়াকাটার মিলন।।
/ ৩৯ বার
আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ৮ জুলাই, ২০২১, ২:২০ অপরাহ্ন
কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি ।।
কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতে মাছ ধরতে গিয়ে নিখোঁজ হওয়ার দীর্ঘ ১৩ বছর পরে মিলন আকন (৩০) নামের এক যুবককে ফিরে পেয়েছে বাবা-মা।
বৃহস্পতিবার (৮ জুলাই)দুপুর ১ টার দিকে নিখোঁজ মিলনকে  বাড়িতে নিয়ে আসে তার পরিবার। গত দুইদিন আগে এক আত্নীয়’র মাধ্যমে শুনতে পারে পাশ্ববর্তী জেলা বরগুনার তালতলী উপজেলায় তাঁকে রাস্তায় পাগল বেশে দেখতে পেয়েছে।
বৃহস্পতিবার সকালে তালতলীতে গিয়ে মিলনের মা মিনারা বেগম, ও ভাই রুবেল আকন, তার পরিচয় নিশ্চিত করে সমুদ্র পথে ট্রলারযোগে বাড়িতে নিয়ে আসে। ফিরে আসা মিলন আকন কুয়াকাটা পৌরসভার ৩ নং ওয়ার্ডের শাহ-আলম আকনের বড় ছেলে। এদিকে দীর্ঘ তের বছর পরে মিলনকে ফিরে পাওয়ার খবর শুনে আত্নীয় স্বজন, পাড়া প্রতিবেশী এবং বন্ধু বান্ধবদের মধ্যে কৌতূহল সৃষ্টি হয়েছে। বিভিন্ন এলাকা থেকে তাকে দেখতে লোকজন ভীড় করছেন মিলনের বাড়িতে।
মিলনের বাবা শাহ-আলম আকন বলেন, আমার ছেলে মিলন ২০০৮ সালে সমুদ্রে মাছ ধরতে গিয়েছিল। তার সাথে ফারুক (১২) এবং খোকন (২৫) নামে দু’জন ছিল কেউই ফেরেনি। অনেক খোঁজা খুজি করেছি তাদেরকে। হঠাৎ দু’দিন হলো শুনতে পেয়েছি আমার ছেলে মিলনকে নাকি পাওয়া গেছে তালতলীতে। পরে ওর মা গিয়ে নিয়ে আসছে এবং এটা যে আমার ছেলে  আমি পুরোপুরি নিশ্চিত।
মিলনের মা মিনারা বেগম জানান, আমার ছেলেকে আমি দীর্ঘ ১৩ বছর পর আমার বুকে ফিরে পেয়েছি। আমি অনেকদিন এই সাগর পাড়ে ছেলের খোঁজে দিন কাটিয়েছি। আজ আমার আর কোনোকিছু চাওয়ার নেই, আমার ছেলেটা এখন মানসিক অসুস্থ। আমি এখন ওরে চিকিৎসা করাবো ও সুস্থ হলে বলতে পারবো ও এতদিন কোথায় ছিল।
কুয়াকাটা পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মনির শরীফ বলেন, আমার ওয়ার্ডের মিলন নামের একটি ছেলে ২০০৮ সালে মাছ ধরতে গিয়ে নিখোঁজ হয়েছিল, আজকে তাঁকে তার পরিবার তালতলী থেকে বাড়িতে নিয়ে আসছে। মিলোনের বাবা-মা, পরিবারের লোক তার গায়ে থাকা যে কাটা দাগের কথা বলতেছে তা পুরোপুরি মিলে গেছে। এবং তার সাথে কাজকরা জেলেদের মাধ্যমে আমি ওর পরিচয় নিশ্চিত হয়েছি।
এ জাতীয় আরো খবর
আমাদের ফেইসবুক পেইজ